মুক্তিযোদ্ধা হিউবার্ট সন্তোষ ডি’কস্তার স্মরণে শোকসভা 

সুবীর কাস্মীর  পেরেরা:

‘জীবনদশায় হিউবার্ট সন্তোষ ছিলেন সাহসী এবং স্পষ্টভাষী মানুষ। তিনি ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা। রাঙ্গামাটিয়া তথা সারা বাংলাদেশের গর্ব। একাধারে তিনি ছিলেন সমাজ কর্মী ও মন্ডলীর সেবক।’ কথাগুলো বলেন রাঙ্গামাটিয়া ধর্মপল্লী প্রবাসী কল্যাণ সমিতির সভাপতি সুবাস আব্রাহাম ডি’কস্তা।  তিনি বলেন, আমাদের সমিতির লক্ষ্য হলো ধর্মপল্লীর সকল মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানার্থে মুক্তিযোদ্ধা  সংগ্রহশালা ও এলাকার উন্নয়নে কাজ করা। তিনি বলেন, তারই ধারাবাহিকতায় আজ আমরা একজন প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধার স্মরণে এই আয়োজনের ব্যবস্থা করেছি।

ইসুদুর পালমা(মাষ্টার) এর সঞ্চালনে মঞ্চে আসন গ্রহণ করেন বিসিসিএস এর প্রেসিডেন্ট বাবলু ডি’কস্তা, মুক্তিযোদ্ধা ফ্রান্সিস গ্রেগরি, সুবাস আব্রাহাম ডি’কস্তা ও সরলা পিরিচ।

গত ২ ডিসেম্বর বিসিসিএস নতুন বাড়িতে এই সভার আয়োজন করা হয়। সভার শুরুতে স্থানীয় মহিলা প্রার্থনা দলের প্রার্থনার মধ্যে দিয়ে সভার কাজ শুরু হয়।

ডেনিস আলবার্ট রিবেরু বলেন, মুক্তিযোদ্ধা সন্তোষ আমাদের গর্ব। তার সাথে আমি দীর্ঘদিন কাজ করেছি। তিনি ছিলেন সাহসী একজন, যার প্রমাণ তিনি দেখিয়েছিলেন কারিতাসের কাজের মাধ্যমে। তিনি সমিতির এই ধরণের উদ্যোগের সাথে  সম্প্রীত হতে সকলের প্রতি আহ্বান করেন।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, বাবলু ডি’কস্তা, সুবোধ আর্থার রোজারিও ও পিন্টু পালমা।

উল্লেখ্য মুক্তিযোদ্ধা হিউবার্ট সন্তোষ ডি’কস্তা ১৯৫১ সালের ১১ নভেম্বর রাঙামাটিয়ায় জন্ম গ্রহণ করেন। এবং গত ২৫ নভেম্বর ২০১৮ হলিফ্যামিলি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। দীর্ঘ সময় তিনি কারিতাস ঢাকা অঞ্চলের আঞ্চলিক পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া তিনি ভিবিন্ন সামাজিক কার্যক্রমের সাথে জড়িত ছিলেন। তিনি ছিলেন দি মেট্রোপিলিটন খ্রিষ্টান হাউজিং সোসাইটির ভাইস প্রেসিডেন্ট।