যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হলো বিশ্ব শিক্ষক দিবস ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ

Barendradut

“দক্ষ শিক্ষক নিশ্চিত হলে শিক্ষা অধিকার তবেই মিলে” এ মূলসুরকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশ কাথলিক এডুকেশন বোর্ড কারিতাসের ফরমেশন অব ইয়ূথ এন্ড টিচার্স প্রোগ্রামের সহায়তায় বাংলাদেশব্যাপী চার্চ পরিচালিত স্কুলসমূহে বিশ্ব শিক্ষক দিবস উদযাপনের উদ্যোগ গ্রহন করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত ৬ অক্টোবর ২০১৮ খ্রিস্টাব্দে রাজশাহী ধর্মপ্রদেশের মুক্তিদাতা জুনিয়র হাইস্কুলে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হলো দিবসটি। দিনের শুরুতে বিভিন্ন শ্লোগান দিয়ে শিক্ষার্থীরা র‌্যালি বের করে। র‌্যালি শেষে আয়োজন করা হয় আলোচনা সভা ও সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠান। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফাদার ড. শংকর গমেজ পালপুরোহিত, আন্ধারকোঠা ধর্মপল্লী এবং সভাপতিত্ব করেন মুক্তিদাতা জুনিয়র হাইস্কুলের সভাপতি ও কাথিড্রাল ধর্মপল্লী পালপুরোহিত, ফাদার পল গমেজ। এছাড়া অনুষ্ঠানে এসএমসি’র সদস্য-সদস্যা, অভিভাবক ও কারিতাস রাজশাহী অঞ্চলের শিক্ষা প্রকল্পের প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথি ফাদার ড. শংকর গমেজ তাঁর উপস্থাপনায় দক্ষ শিক্ষক হয়ে গড়ে ওঠার বিভিন্ন দিক সুন্দরভাবে তুলে ধরেন এবং বলেন শিক্ষকরা যেহেতু দেশ গড়ার কারিগর এজন্য আজকের এ দিনে তাঁদের আমরা বিশেষ সম্মাননা দিতে চাই। তাঁদের জন্য আমরা প্রার্থনা করব তাঁরা যেন আরও ভাল ও সুন্দর থেকে তাঁদের কাজ চালিয়ে যেতে পারেন। সভাপতি ফাদার পল গমেজ বলেন, শিক্ষকরা প্রতিদিন অনেক কষ্ট ও পরিশ্রম করে ছেলেমেয়েদের মানুষ করে গড়ে তুলছেন। আজকের দিনে আমরা তাঁদের বিশেষ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই! তাঁদের সু-স্বাস্থ্য কামনা করি। এছাড়া অনুষ্ঠানে প্রধান শিক্ষিকা সি. মেবেল রোজারিও ও শিক্ষকদের বিশেষ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। অনুষ্ঠানব্যাপী শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের নিয়ে বিভিন্ন গান, কবিতা, নাচ ও জীবন টীকা উপস্থাপন করেন। শিক্ষকদের প্রদান করা হয় বিশেষ উপহার! এছাড়া শিক্ষক দিবসকে কেন্দ্র করে উন্মোচন করা হয় দেয়ালিকা। কাথলিক এডুকেশন বোর্ড মূলসুরকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন মেসেজ সম্বলিত তথ্য দিয়ে ছাপিয়েছে পোস্টার যা বাংলাদেশের মিশন স্কুলে স্কুলে পৌঁছে দেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য রাজশাহী ধর্মপ্রদেশের সকল স্কুলেই শিক্ষকদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতার চিহ্নসরূপ গোটা অক্টোবর মাসব্যাপী দিবসটি উদযাপনের পরিকল্পনা গ্রহণ করছে।
নিজস্ব সংবাদদাতা