মধুপুরে ইউপি নির্বাচনে ১১জন আদিবাসী বিজয়ী

বৃহস্পতিবার টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে  নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে । নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৮টি ইউনিয়নের মধ্যে ৭টিতেই আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন । শুধুমাত্র শোলাকুড়ি ইউনিয়নে সতন্ত্র (আওয়ামীলীগ/বিদ্রোহী)প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন ।আদিবাসী অধ্যুষিত ৬ টি ইউনিয়নে অন্যান্যদের সাথে রেকর্ড সংখ্যক আদিবাসী প্রার্থীরা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করলেও মেম্বার পদে ৮ জন ও সংরক্ষিত মহিলা আসনে ৩ জনসহ কমপক্ষে ১১ জন প্রার্থীর বিজয়ের খবর পাওয়া গেছে ।

বেরিবাইদ ইউনিয়নে মেম্বার পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দিতা করে বিজয়ী হয় ৩ জন তারা হলেন, সুনজু মানখিন, লরেন্স নকরেক ও তুষার রেমা ।

শোলাকুড়ি ইউনিয়নে মেম্বার পদে ৫ জন প্রতিদ্বন্দিতা করে বিজযী হন ২ জন । তারা হলেন রঞ্জিত নকরেক ও বিকশন নকরেক । সংরক্ষিত মহিলা আসনে ২ জনের মধ্যে তিরলা চিরান বিজয়ী হন ।

অরনখোলা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ১ জন নির্বাচন করলেও বিজয়ী হতে পারেননি । মেম্বার পদে ৫ জন নির্বাচন করে প্রবীর নকরেক চন্দ্র বর্মন ছাড়া আর কেউ নির্বাচিত হননি । সংরক্ষিত মহিলা আসনে ২ জনের কেউই বিজয়ী হতে পারেনি ।ফুলবাগচালা ইউনিয়নে মেম্বার পদে ৯ জন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করলেও বিনেশ রেমা ছাড়া আর কারোর বিজয়ী হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি । সংরক্ষিত মহিলা আসনে ২ জনের মধ্যে ঝূমা রানী বর্মন বিজয়ী হয়েছে ।

আউশনারা ইউনিয়নের একমাত্র গারো মেম্বার প্রার্থী বিজয়ী হতে পারেনি ।

কুড়াগাছা ইউনিয়নে মেম্বার পদে ৩ জন প্রার্থীর মধ্যে ফারুন নকরেক বিজয়ী হয়েছেন । সংরক্ষিত মহিলা আসনে ২ জন প্রার্থীর মধ্যে অচর্না নকরেক বিজয়ী হয়েছেন ।

উল্লেখ্য মধুপুরে এবারের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৩৬ জন আদিবাসী প্রার্থীর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১ জন, মেম্বার ২৭ পদে জন এবং সংরক্ষিত মহিলা আসনে ৮ জন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করেছিল ।

(সূত্র: আচিক নিউজ)

আরো ছবি: