বিভিন্ন দাবীতে ২১ জুলাই শেরপুরে বাগাছাসের সমাবেশ

বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস) শেরপুর জেলাধীন পাঁচটি শাখার যৌথ উদোগ্যে আগামী ২১ শে জুলাই শেরপুর শহরের সদরে আদিবাসীদের সাংবিধানওক স্বীকৃতি,সমতল আদিবাদীদের পৃথক মন্ত্রণালয় গঠন এবং ভূমি কমিশন গঠনের দাবিতে সমাবেশ করতে যাচ্ছে। উক্ত শাখা সমূহ হচ্ছে, ১) শেরপুর শাখা ২)ঝিনাইঘাটি শাখা ৩)নালিতাবাড়ি শাখা ৪) শ্রীবর্দী শাখা ৫) বক্সীগঞ আদিবাসী বিষয়ক বিভিন্ন সমস্যায় বাগাছাসের কার্যক্রমকে ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে এবং আদিবাসীদের সাংবিধানিক সীকৃতির দাবিতে শুরু থেকেঔ সোচ্চার ছিল বাগাছাস। তারই অংশ হিসেবে ও সমতল আদিবাসীদের জন্য পৃথক মন্ত্রণালয় গঠন,ভূমি কমিশন গঠনের দাবিতে আয়োজিত হবে সমাবেশ।

বাগাছাস ঢাকা মহানগর শাখার শাখার প্রচার সম্পাদক : শান্ত ম্রং এই ব্যাপারে খোলামেলা বলেন, আমাদের দাবি দাওয়ার মধ্যে প্রধান দাবি আদিবাসী সীকৃতি। আমরা বিশ্বাস করি একদিন সরকার আমাদের দিকে মুখ ফিরে চাইবে। সরকারের প্রতি আহ্বান আদিবাসী স্বীকৃতি প্রদানের জন্য। তাছাড়া আপনারা খেয়াল করে দেখবেন আমাদের পৃথক ভূমি কমিশন নেই, সমতল আদিবাসীদের পৃথক মন্ত্রণালয় নেই। আমরা সরকারের কাছে জোর দাবি জানায়, ভূমি কমিশন এবং পৃথক মন্ত্রণালয় গঠনের জন্য।

তিনি আরো বলেন,বাগাছাস ১৯৭৯ সালের ২৪শে নভেম্বর প্রতিষ্ঠা হয়েছিল আদিবাসীদের দাবি দাওয়া পূরণের লক্ষ্যে। তার কার্যক্রম এখনো বহমান। আপনি যদি বিগত কয়েক বছর আমাদের কর্মকান্ড দেখেন,দেখা যাবে বাংলাদের প্রতিটা শাখায় বিশেষ করে ঢাকা মহানগর শাখায় বর্তমান বাগাছাস, ঢাকা মহানগর সভাপতি মি: অলিক মৃ এর নেতৃত্ব অনেকগুলো সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় তার মধ্যে অন্যতম গুলো হচ্ছে, মাইক্রোবাসে গারো তরুণী ধর্ষণ মামলা প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশ জনমনে ব্যাপক সাড়া ফেলে। তারপর মধুপুরের বিশাল এরিয়া সংরক্ষিত বনায়নের নামে এক শ্রেণির ভূমি দস্যুদের পায়তারা মোকাবেলায় সংগঠিত করা, আরো বিভিন্ন সমাবেশ,বিক্ষোভ মিছিল মানব বন্ধব যা আপনারা আমাদের পেইজে গেলে দেখতে পাবেন। আদিবাসী স্বীকৃতি প্রদান দাবি ছিল প্রধান দাবি। আমরা আজও দাবিটির জন্যে রাজপথে নেমেছি। আমাদের বিশ্বাস, সরকার আমাদের দাবি মেনে নিবেন ।