মিরপুরে বিশেষ সূর্যোদয় কালীন উপাসনা

খ্রীষ্ট বিশ্বাসীদের একটি বিশেষ দিন ইস্টার সানডে। সারা পৃথিবী জুড়ে প্রভু যীশু খ্রীষ্টের পবিত্র পুনরুত্থান দিনটি জাঁকজমকের সাথে খ্রীষ্ট বিশ্বাসীরা পালন করে থাকে। পবিত্র পুনরুত্থান  উপলক্ষ্যে প্রতিবারের ন্যায় এবছরও মিরপুর আন্তঃমান্ডলিক ঐক্য ও সহভাগিতা’র উদ্যোগে আয়োজন করা হয়েছে ‘বিশেষ সূর্যোদয় কালীন উপাসনা’।

উপাসনা আরম্ভ হয় ১৬ এপ্রিল সকাল ৫.৪৫ মিনিটে, ঢাকা ওয়াইএমসিএ এবং বিবিসিএস এর সামনের সড়কে, মিরপুর-১০।

এই উপাসনায় মিরপুরসহ আশেপাশের এলাকার প্রায় ৪ (চার) হাজার খ্রীষ্টভক্ত উপস্থিত হয়েছিল।

পবিত্র পুনরুত্থানের বিশেষ বাণী ও বাক্যের পরিচর্য্যা করেন বিশপ রেভারেন্ড সৌরভ ফলিয়া (চার্চ অব বাংলাদেশ)।

উক্ত উপাসনায় বিশেষ শুভেচ্ছা বাণী ও আশীর বচন পদান করেন আন্তমান্ডলিক ঐক্য ও সহভাগিতা’র সভাপতি বিশপ নিবারন দাশ (বাংলাদেশ ম্যাথডিস্ট চার্চ) ও উপস্থিত ছিলেন অন্যান্য চার্চের পালক-পুরোহিত  মহোদয়গণ। এছাড়া শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম ডিনোমিনেশনাল চার্চ ব্যাপ্টিষ্ট চার্চ সংঘের সভাপতি মি. জয়ন্ত অধিকারী। ধর্মীয় আরাধনা সঙ্গীত ও প্রার্থনায় এই উপাসনাটি সকলের হৃদয় ছুঁয়ে যায়।

আরাধনা আনুষ্ঠানটির সার্বিক পরিচালনা ও সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃৃহত্তম ডিনোমিনেশনাল চার্চ ব্যাপ্টিষ্ট চার্চ সংঘের সহ-সভাপতি ও মিরপুর আন্তঃমান্ডলিক ঐক্য ও সহভাগিতা’র সাধারণ সম্পাদক মি. উইলিয়াম প্রলয় সমদ্দার বাপ্পি।

প্রভু যীশু খ্রীষ্টের পবিত্র পুনরুত্থানের তাৎপর্য সবার নিকট পৌঁছে দেবার জন্য ও এ আনন্দ সবার সাথে ভাগাভাগি করে নেওয়ার জন্য এ উপাসনার স্থানটি একটি মিলন মেলায় পরিণত হয়। (বিজ্ঞপ্তি)